লোকে বলত, আমি দেখতে ছেলের মতো

তারকাদের নিয়ে জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের এ যুগে নিয়তই কটাক্ষের শিকার হন তাঁরা। বাদ পড়েন না তারকাদের সন্তানেরাও।

তাঁদের নিয়ে নেতিবাচক বাক্যের অন্ত নেই অন্তর্জালে। চলচ্চিত্র অঙ্গনে প্রবেশের আগেই পাপারাজ্জিদের কড়া নজরদারি। এ সবের মধ্য দিয়েই যেতে হয় স্টার কিডদের।

একই অবস্থা বলিউড অভিনেতা চাঙ্কি পান্ডের মেয়ে অনন্যার। শুধু চেহারাই নয়, শরীরের খুটিনাটি চুলচেরা বিশ্লেষণ করে কটূকথা বলতে দ্বিধা নেই নেটজনতার একাংশের। সম্প্রতি বলিউড বাবলের সঙ্গে আলাপচারিতায় সে সবই খোলামেলাভাবে প্রকাশ করেছেন অনন্যা পান্ডে।

বলিউডে অভিষেকের আগেই সামাজিক পাতায় বিদ্রূপের শিকার হয়েছিলেন অনন্যা। সে সময় মুক্তি পায়নি তাঁর প্রথম সিনেমা ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার টু’।

এই ‘খালি পিলি’ অভিনেত্রী বলেন, ‘ঠিক সময়টা মনে নেই, কিন্তু মনে আছে, মা-বাবার সঙ্গে আমার ছবি ব্যবহার করা হতো। ওই সময় আমি অভিনেতা ছিলাম না। মা-বাবার সঙ্গে বাইরে বের হতাম এবং আমাকে বলা হতো, আমি রোগাটে। লোকে বলত, আমি দেখতে ছেলের মতো, ফ্ল্যাটস্ক্রিন এবং এ ধরনের সবকিছু।’

অনন্যা আরও জানান, ওই সময় ওসব মন্তব্য তাঁর ওপর প্রভাব ফেলত। আঘাতও পেতেন। কারণ, সে সময় তাঁর আত্মবিশ্বাস কেবল তৈরি হতে চলেছিল এবং নিজেকে ভালোবাসতে শিখছিলেন মাত্র। তবে, এখন আর তেমন প্রভাব ফেলে না। এখন নিজেকে গ্রহণ করতে শিখেছেন অনন্যা।

দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি, শুধু অনন্যা নন, বহু তরুণী বডি-শেমিংয়ের শিকার অন্তর্জালে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *