প্রকাশ্যে এলো, বাংলাদেশি নায়িকার সঙ্গী টয়

বর্তমান সময়ে দেশে কিছু যুবক যুবতী খারাপ পথে চলে যাচ্ছে। আর এই সকল যুবক যুবতী অনেক বড় রকমের খারাপ কাজের সাথে যুক্ত

হচ্ছে বলে প্রায় সময় সংবাদ প্রকাশ পায়। এদিকে, গত কয়েকদিন ধরে দেশে একটি বিষয় নিয়ে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা চলছে। আর এই বিষয়টি হল সে’’ক্স’’ট’’য়। অভিযোগ উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কিছু অসাধু ব্যক্তি এই ট’’য় বিক্রয় করছে। আর এবার প্রকাশ্যে এলো, বাংলাদেশি নায়িকার সঙ্গী এই টয়।

পরিচিত মুখ। বাংলা চলচ্চিত্রের নায়িকা। বয়স কম হয়নি। কিন্তু দেখে বুঝার উপায় নেই। শরীর-মন এখনও তারুণ্যে ভরপুর। সঙ্গী ছেলেবন্ধু একজন ব্যবসায়ী। দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। ছেলেবন্ধুর দুর্বলতায় তার ওপর নায়িকার বিরক্তি চরমে।
গল্পটি বলছিলেন ওই নায়িকা নিজেই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি জানান, তার আকাক্সক্ষা একটু বেশি। তবুও স্বামীর সঙ্গে ডি’ভো’র্সে’র পর আর বিয়ে করেননি। ডি’ভো’র্সে’র বিভিন্ন সময়ে কয়েক বন্ধু এসেছেন নায়িকার জীবনে। স্থায়ী হননি কেউ। এই নায়িকার দাবি, সামাজিক কারণে তিনি অবাধে

মিশেননি। কাজের জন্য কারও বি’ছা’না’য় যাননি। ভালোবেসে কারো কারো কাছে গেছেন। কিন্তু সুখী হতে পারেননি।
ওই নায়িকা জানান, ২০০০ সালের দিকে ভিন্নপথে হাঁটেন তিনি। সিঙ্গাপুর বেড়াতে গিয়েছিলেন ছেলেবন্ধুর সঙ্গে। ফেরার সময় ওই বন্ধুকে নিয়ে গিয়েছিলেন শপে। সেখানে বিক্রি হচ্ছিলো নানা রকম সে’’ক্স’’ট’’য়। ঠাট্টার ছলে ছেলে বন্ধুকে বলেছিলেন, এটি একটি কিনে দাও। এটার হেল্প নেয়া যাবে।

তারপর থেকে ছেলেবন্ধু থাকুক বা না থাকুক সে’’ক্স’’ট’’য়ে আ’কা’ক্স’ক্ষা পূরণ করেন তিনি। অবশ্য তিনি স্বীকার করেন এক্ষেত্রে য’ন্ত্রে’র ব্যবহার উচিত না। একটু অসাবাধনতায় দু’র্ঘ’ট’না ঘটতে পারে। সাম্প্রতিক সময়ে সে’’ক্স’’ট’’য় ব্যবহারে ইংলিশ মিডিয়ামের ছাত্রীর মৃ’’ত্যু’’র পর এর ব্যবহার থেকে বিরত রয়েছেন তিনি। সূত্র: মানবজমিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *