ফরিদপুরে আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বিএনপির বিজয়

ফরিদপুর জেলা আইনজীবী সমিতির ২০২১-২২ নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১০টি পদে বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা জয়ী হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ ) সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে ভোটগ্রহণ হয়। সমিতি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দুটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দিতা করে।

সভাপতি পদে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী এ্যাড: আবু ওমর মো: খালেদ ১৩৪ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী এ্যাড: আ: কাদের ১১২ ভোট ও আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী এ্যাড. আবুল বাশার পেয়েছেন ৪৪ ভোট।

সহ-সভাপতি পদে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী এ্যাড. আ: সাত্তার ১৭৫ ভোট ও এ্যাড. মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান ১৭২ ভোট পেয়ে জয়ী হোন। তাঁদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী এ্যাড. বশির চৌধুরী ১২৫ ভোট ও এ্যাড. আ: জলিল চাঁন ৯৬ ভোট পান।

এদিকে সাধারণ সম্পাদক পদে বিএনপি মনোনীত এ্যাড. মো: জসীমউদ্দিন মৃধা ১৭২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগ মনোনীত এ্যাডঃ আমিন-উর-রহমান পেয়েছেন ১২৬ ভোট পান।

সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী এ্যাড. শাহ মো: আবু জাফর ১৫৯ ভোট পেয়ে জয়ী হোন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী চৌধুরী জাহিদ হাসান পেয়েছেন ১২৯ ভোট।

অর্থ সম্পাদক পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী এ্যাড. মো: ইনজামুল হক মিঠু ২০৭ ভোট পেয়ে জয়ী হোন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনোনীত এ্যাড. ইয়ার আলী পেয়েছেন ৮৬ ভোট।

ক্রীড়া সম্পাদক পদে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আবু নাঈম মো: জুয়েল ১৫০ ভোট, নিরীক্ষা সম্পাদক পদে বিএনপি মনোনীত মো: মতিয়ার রহমান ১৭৩ ভোট, প্রচার প্রকাশনা ও গ্রন্থাগার সম্পাদক বিএনপি মনোনীত নির্মল দাস ১৯৯ ভোট, নির্বাহী সদস্য পদে বিএনপি মনোনীত খসরুজ্জামান খসরু ১৭০ ভোট, নির্বাহী সদস্য পদে বিএনপি মনোনীত নুরুল ইসলাম ১৫১ ভোট পেয়ে বিজয় লাভ করেন।

এছাড়া তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক আওয়ামীলীগ মনোনীত বিজয় ঘোষ ১৬৪ ভোট, নির্বাহী সদস্য পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত শরীফা ঠাকুর ২০৬ ভোট ও নির্বাহী সদস্য পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত অসিত কুমার মজুমদার ১৪২ ভোট পেয়ে জয়ী হোন।

নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ্যাড. দীনেশ চন্দ্র দাস বলেন, আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন ৩০৪ জন। এর মধ্যে ২৯৬ জন ভোটার তাঁদের ভোটাধিকার প্রদান করেন। কোনো প্রকার সহিংসতা ও কাঁরচুপি ছাড়াই নির্বাচন অবাধ ও সুস্থ হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *