স্ত্রীর চরিত্র নিয়ে সন্দেহ, তাই সেলাই করে দিল স্বামী!

স্ত্রীর চরিত্র নিয়ে সন্দেহ৷ অন্য পুরুষের সঙ্গে স্ত্রীর সম্পর্ক রয়েছে এই সন্দেহ থেকে স্ত্রীর যৌনাঙ্গ সেলাই করল স্বামী! উত্তরপ্রদেশের রামপুর জেলার মিলাকের এই ঘটনায় রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে৷

পেশায় চালক স্বামী, স্ত্রীকে সতীত্ব পরীক্ষা দিতে বলে৷ নিজের অনুপস্থিতিতে বহু পুরুষের সঙ্গে স্ত্রীর সম্পর্ক রয়েছে, এই ধারণা তার তৈরি হয়৷ তাই এমন প্রস্তাব দেয় সে৷ স্ত্রী রাজি হয়ে যান৷ তারপর স্ত্রীর হাত-পা বেঁধে,

তার যৌনাঙ্গ সেলাই করে সে৷ এমনই অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে৷ এরপর ঘটনাস্থল থেকে সে পালিয়ে যায়৷ শরীরে এভাবে কাঁটাছেড়া করায় রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন স্ত্রী৷

প্রতিবেশীরা তড়িঘড়ি খবর পাঠায় তাঁর মায়ের কাছে৷ পাশের গ্রাম থেকে ছুটে আসেন নির্যাতিতার মা৷ স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়৷ একই সঙ্গে জামাইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন শাশুড়ি৷

পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে৷ আপাতত কয়েকজন চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে মহিলার শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছে৷ রামপুর জেলা হাসপাতালে হয়েছে পরীক্ষা৷ তাঁর উপর যে অত্যাচার হয়েছে, তা নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসকরা৷ এরপরই পুলিশ মহিলার স্বামীকে গ্রেফতার করে৷

দু’ বছর আগে তাদের বিয়ে হয়৷ কিন্তু বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীর উপর অত্যাচার চলত বলে অভিযোগ করেন স্ত্রী৷ সব সময় স্ত্রীকে সন্দেহের চোখে দেখত স্বামী৷ এমনকী তার বিবাহবহির্ভুত সম্পর্ক চলছে বলেও সন্দেহ করত স্বামী, জানাচ্ছেন স্ত্রী৷ আমি যে নির্দোষ তা প্রমাণ করতে বলা হয়৷ কিন্তু বুঝতে পারিনি যে এভাবে আমার উপর অত্যাচার চলবে৷ বলছেন নিগৃহীতা৷

দম্পতির এক সন্তান জন্মের পরপরই মারা গিয়েছে৷ শারীরিক পরীক্ষায় ধরা পড়েছে যে মহিলার উপর অসম্ভব অত্যাচার চলেছে৷ তাঁর স্বামীরে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং তাকে জেলেও পাঠানো হবে৷ মহিলা যেন সঠিক চিকিৎসা পেয়ে বাড়ি ফিরতে পারেন, সেই চেষ্টা করছে পুলিশ, জানিয়েছেন রামপুরের পুলিশ সুপার৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *