ভারত বাংলাদেশের ওপর দাদাগিরি করে না: হাইকমিশনার

বাংলাদেশের সাথে অন্য কোনো দেশের গভীর সম্পর্ক, ভারতের জন্য চিন্তার বিষয় নয়। আমাদের বন্ধুত্ব ১৭ কোটি বাংলাদেশির সঙ্গে। বাংলাদেশের সাথে সম্পর্কের উঠানামা থাকতেই পারে কিন্তু ভারত, বাংলাদেশের উপর দাদাগিরি করে না। কূটনৈতিক সাংবাদিকদের সংগঠন, ডিক্যাব টকে এসব বলেন, বাংলাদেশে নিযুক্ত

ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী। সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) কূটনীতিক সাংবাদিকদের সংগঠন ডিক্যাব টকে ঢাকায় দিল্লির দূত বিক্রম দোরাইস্বামীর সূচনা বক্তব্যেই স্পষ্ট করেন, বাংলাদেশে তার পরিকল্পনার কথা। বলেন, বাংলাদেশ ভারতের বিশ্বস্ত ও প্রমাণিত বন্ধু। তাই বাংলাদেশের ওপর ভারতের দাদাগিরির প্রশ্নই উঠে না।

তিনি বলেন, বাংলাদেশিদের সবসময় ভিসা দেওয়ার ব্যাপারে ভারত উদার থাকে। করোনার কারণে আমরা হয়তো পর্যটকদের ভিসা দিতে পারছি না। তারপর গতকাল রবিবারও (১৪ ফেব্রুয়ারি) আমরা এক হাজার ৬০০ ভিসা দিয়েছি। আমি জানি না, কেন আমাদের ভুল বোঝা হয়। কীভাবে বড় ভাইসুলভ আচরণ হয় জানি না। বাংলাদেশের সঙ্গে আমাদের সবচেয়ে বড় বাণিজ্যিক সম্পর্ক। আমাদের ২৮ ভাগ অর্থনীতি বাংলাদেশের সঙ্গে। তাই ভারত দাদাগিরি পছন্দ করে না।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের উন্নতি ভারতের উন্নতি হিসেবে দেখে। কোনো ষড়যন্ত্রের তথ্যে কান দেবেন না। আমরা সবসময় পারস্পরিক উন্নতিতে বিশ্বাস করি। বাণিজ্য, মানুষের সঙ্গে মানুষের, সরকারের সঙ্গে সরকারের উন্নতি আমাদের লক্ষ্য।

ভালো বন্ধুত্বকে আমরা আরো এগিয়ে নিতে চাই উল্লেখ করে বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী বলেন, আমাদের ভালো ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে আমাদের সম্পর্ক কতটা শক্ত, তার ওপর। সীমান্তে সব হত্যায় বিএসএফ ঘটায় না। এটা রোধ করতে দু’পক্ষকেই সচেষ্ট হতে হবে বলে জানান তিনি।

ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশ নেপাল ভুটানের মধ্যে যোগাযোগের ব্যাপারে ভারত নীতিগতভাবে একমত। কিন্তু বাংলাদেশের ভেতরে কীভাবে সেটা পরিচালনা হবে, তা এখন বাংলাদেশকে ঠিক করতে হবে।

কেএ/ডিএ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *