বেশি ভাগ সময় গাড়িতেই কাজ করতে বাধ্য হতে হয় !

রাজধা’নীর অন্য,তম ব্যস্ত’তম এলাকার ম,ধ্যে ফা’র্মগেট অন্ন’তম।

দিনের বেলায় মানুষের পদ’চারণায় মুখরিত থাকে

এ এলাকা তাই দেখে হয়তো অনেক কি,ছুই বো,ঝা যায় না।

কি,ন্তু রাতের নিরব,তা যত বাড়ে, ততই এই এলাকায় আনা,গোনা বাড়ে

দে’হ ব্যব’সায়ীদের।খ’দ্দেরের খোঁ’জে বো’রকা প’ড়ে অ’পেক্ষা ক’রতে দে’খা

যায় তাদের রা,স্তার ধারে।গত,শনিবার এ,বং রবিবার মধ্য’রাতে

সরে’জমিনে ফা’র্মগেটে গিয়ে দেখা যায়, খ’দ্দেরের খোঁ’জে

বোরকা প’ড়ে এখানে-সেখানে অ’পেক্ষা করছেন প’তিতারা।তাদের

পাশেই সারি-সারি সিএনজি দাঁ,ড়িয়ে আছে। খ’দ্দের এসে প্রথ,মে দামা’দামি করে।

এরপর চূ’ড়ান্ত হলে নিয়ে যায় সিএ,নজি করে।

তাদের ম,ধ্যে অনে,কেই সাধা,রণ মানু,ষকেও বির’ক্ত করে।

নিবি,লাগবে বলে বিভি,ন্ন ইশা’রা দেয় তারা।

এতে অনেক পথ,চারীও বিড়ম্ব,নার ম,ধ্যে প’ড়েন।

সোহেল হাসান নামের একজন পথ,চারী বলেন, ওরা সু,যোগ বুঝে ই,শারা দেয়,

নানান রকম অ’’শ্লী’ল কথাও বলে। সাংবা’দিক পরিচয় গো’পন রেখে কথা হয়

নিতু নামের একপতি’তার স’’ঙ্গে। স,দ্য এ পথে পা বাড়িয়েছে বলে দা’বি

তার। কি’শো’রগঞ্জ জে’লার ভৈরবে,বাড়ি বলে জা’নান নিতু।তিনি বলেন,

আমি যে এ পেশায় আছি তা আমা’র পরিবারের কেউই জানে না।

টাকার অভা,বেই এ পে,শাই আসছি। এত পেশা থাকতে এ পেশায়আ’

সলেন কেন, এমন প্র,শ্নের জবাবে কো,নো উ,ত্তরই দেননি তিনি।

নিতু জা’নায়,আধাঘ,ন্টার জ,ন্য নিয়ে গেলে ৫০০ টাকা আর পু,রো রাতের জ,ন্য নিয়ে গেলে ১ হাজার

টাকা নেই। আমি রাতেই ফা’র্মগেটে আসি। হোটেলে বা খ’দ্দেরের বা,সায় যেয়ে কা,জকরি।

তার দা’বি, খ’দ্দের অনেক,সময় ৫০০ টাকার কথা বলে নিয়ে যায়

কাজ শেষে ২০০ বা৩০০ টাকা দেয়। প্রতি,বাদ কর,লেও লাভ হয়না।

আবার মাঝেমধ্যে অনেকে আরও কমটাকাও দেয়। নিতুর সাথে কথা বলে সামনে এগু’’তেই দেখা যায়,

আরও চার প’তিতা এক’স’’ঙ্গেই বসে আছেন।

বিভিন্ন সিএনজি তাদের সা,মনেই থামে, মাঝে-ম,ধ্যে সিএ,নজি

চালকদের সা,থেও খোশ,গল্পে মাতে তারা।জা’না যায় , ফার্মগে,টে

সাধারণত প’তিতারা বিকেল থেকে স,ন্ধ্যা বা রাতে,ই আসে।

কেউ কেউ আবার মধ্য,রাতেও বের হয়। সকা,লহলেই ফেরে ঘরে।

শাহীন নামের একজন ভ্য,নচালক বলেন,

আমি এই জায়গাতে ভ্যান,চালাই গত চার বছর ধ’রে।

এদে,রকে (পতি’তা) প্র,তি রা,তেই দেখি। ভো,রে আবার চলে যায়,তারা।

তিনি বলেন, এদের সিএনজি চা,লকও ঠিক করা থাকে।

খ’দ্দের ঠিক হ,লেই সিএনজি করেচলে যায়। অনেকস,ময় সিএন,জিতেই তারা এ কাজ করে।

নাম প্র’কাশ্যে অ’নিচ্ছুক আরেক ভ্যা’নচালক বলেন, এদের ম,ধ্যে কি,ছু প্র’তারকও থাকে।

তারা সিএনজিতে নিয়ে খ’দ্দেরকে প্র’তারণা করে, টাকা, মোবাইল ফোন ছিন’’তাই করে।

মান-সম্মানের ভ’য়ে অনেকেই তা প্র’কাশ করে না।

এ বি’ষয়ে জানতে চাইলে তেজ,গাঁও থা’নার ওসি বলেন,

আমা’দের কাছে এরকম (ছিন’’তাই) অ’ভিযোগ আসেনি।

অ’ভিযোগ পেলে আম’রা ব্যব’স্থা নেব।

প’তিতাদের অব’স্থানের বি’ষয়ে তিনি বলেন, আগে অনেক অ’ভিযান চা’লানো হয়েছিল,

এরপর আ,র তাদের দেখা যা’য়নি। মধ্য,খানে

তারা আ’বার হয়,তো এসেছে, আজ রা,তেই আ’বার অ’ভিযান চা’লাবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *