নতুন জীবনের প্রথম দিন, বোল্ড লুকে কিসের ইঙ্গিত দিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী

টলিপাড়ার স্টাইল আর ফ্যাশন আইকন বলতেই প্রথমে মাথায় আসে অভিনেত্রী ঋতাভরীর নাম। এই অভিনেত্রীর প্রত্যেকটি পোস্ট রীতিমতো আগুন ধরায় সোশ্যাল মিডিয়ার পাতাতে।

ঋতাভরীর কোনও ছবি পোস্ট হতে না হতেই ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল দুনিয়াতে। একের পর এক বোল্ড ছবি দিয়ে নেট জনতার ঘুম কেড়েছেন তিনি।

সব সাজেই একশোতে একশো। কখনো শাড়ির সাজে তো কখনো উষ্ণ অবতারে গোটা সোশ্যাল মিডিয়া মাতিয়ে রেখেছেন ঋতাভরী নিজে একাই।

ঋতাভরী চক্রবর্তী। টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তো বটেই, সেই সঙ্গে বলিউডেও কাজ করেছেন তিনি। টেলিভিশনের পর্দা থেকেই সিনেমা জগতে পা রাখেন তিনি।

‘ওগো বধূ সুন্দরী’ ধারাবাহিকের মিষ্টি মেয়েটি সেই সময় থেকেই আট থেকে আশি সকলের নজর কেড়েছিলেন সকলের। এই ধারাবাহিকের পর পর তাঁকে আর ধারাবাহিকে কাজ করতে দেখা যায়নি।

শুধু অভিনয় নয় সমাজ সেবা করাও এই নায়িকার এক প্রধান ভালোবাসা হয়ে উঠেছে। অভিনয় থেকে ফাঁক পেলেই বাচ্চাদের সঙ্গে সময় কাটানো অভিনেত্রীর অন্যতম নেশা অভিনেত্রীর।

অন্য সেলিব্রেটিরা নিজের জন্মদিনে এলাহি পার্টি করতে ভালোবাসেন কিন্তু তিনি অন্যদের মতো পার্টি না করে ওই দিনটাতে স্কুলের বা অনাথ আশ্রমের বাচ্চাদের কাছে ব্যাগ ভর্তি উপহার নিয়ে পৌঁছে যান তিনি।

গোটা দিন বাচ্চাদের সাথে সময় কাটাতে বেশি পছন্দ করেন অভিনেত্রী। স্কুল পড়ুয়া থাকাকালীন অভিনয় জগতে পা রাখেন। এরপর নিজের পড়াশোনা চলাকালীন সেভাবে অভিনয় না করলেও অভিনেত্রী নানান ভিডিয়ো পোস্ট আর গানের ভিডিয়ো শ্যুটিং দিয়ে মাতিয়ে রেখেছেন ঋতাভরী। সদ্যই মুক্তি পেয়েছে ঋতাভরীর প্রথম বাংলা সিঙ্গল অ্যালবাম ‘রূপসাগরে’। এই গানের মিউজিক ভিডিও বেশ হিট হয়।

সম্প্রতি অভিনেত্রীর অর্শ্বের জন্য ভুগছিলেন। এরপর অভিনেত্রীর অস্ত্রপোচার হয়। এরপরই বিকেলে একটি পোস্ট করে অনুরাগীদের সাথে নিজের কষ্ট ও আনন্দ দুই ভাগ করে নেন।

হাসপাতালের বেডে শুয়েই হাসিমুখে ছবি পোস্ট করেন। বাড়িতে কিছুদিন বিশ্রাম নিয়ে ফের বোল্ড অবতারে হাজির হলেন অভিনেত্রী। সাদা কালো স্পোর্টস ব্রা, হাতে স্মার্ট ওয়াচ আর ব্ল্যাক প্যান্ট আর খোলা চুলে ছবি তুললেন। ক্যাপশনে লিখলেন, “নতুন জীবনের প্রথম দিন”। কিসের জন্য নতুন দিন জানা না গেলেও নিমেষে ভাইরাল হয় এই পোস্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *