নিজের নামে স্টেডিয়ামের নাম বদলে দিলেন মোদি

নতুন করে সংস্কারের পর আহমেদাবাদের মোতেরা ক্রিকেট স্টেডিয়ামের উদ্বোধন করেছেন ভারতের প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দ। বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের পরিচিতি পাওয়া এই মাঠটির নাম বদলে নিজের নামে করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

সরদার প্যাটেল স্টেডিয়ামের নাম বুধবার বদলে রাখা হয়েছে নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়াম। উদ্বোধনের পর এই মাঠেই শুরু হয়েছে সফররত ইংল্যান্ডের সঙ্গে ভারতের দিবা-রাত্রির টেস্ট ম্যাচ। সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

রাজনৈতিক নেতাদের নামে স্টেডিয়ামের নামকরণ ভারতে নতুন কোনও ঘটনা নয়। গত বছর দেশটির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামের নাম বদলে অরুণ জেটলি স্টেডিয়াম করা হয়। জওহরলাল নেহেরুর নামে রয়েছে নয়টি স্টেডিয়াম। রাজধানী দিল্লি, গুয়াহাটি, বিজয়ওয়াড়াতে ইন্দিরা গান্ধীর নামেও স্টেডিয়াম রয়েছে। দেরাদুন, হায়দ্রাবাদ, কোচিতে রাজীব গান্ধীর নামে স্টেডিয়াম তৈরি হয়েছে। অটল বিহারী বাজপেয়ীর নামে রয়েছে নাদাউন ও লখনউ-এর দুটি স্টেডিয়াম। কিন্তু এর কোনওটিরই নামকরণ এসব নেতাদের জীবদ্দশায় কিংবা ক্ষমতায় থাকার সময়ে করা হয়নি বলে জানাচ্ছেন নরেন্দ্র মোদির সমালোচকেরা।

বুধবার নরেন্দ্র মোদির নামে স্টেডিয়ামের নামকরণ উদ্বোধনের পর রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ বলেন, ‘গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময়েই এই স্টেডিয়ামের ধারণা তৈরি করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ওই সময়ে তিনি গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ছিলেন।’ তিনি বলেন, ‘পরিবেশবান্ধব উন্নয়নের একটি উদাহরণ এই স্টেডিয়াম।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, প্রেসিডেন্টের উদ্বোধন করা নরেন্দ্র মোদি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে একসঙ্গে বসে খেলা দেখতে পারবে এক লাখ ৩২ হাজার মানুষ। এটাই হবে দুনিয়ার সবচেয়ে বড় খেলাধুলার স্টেডিয়াম। আহমেদাবাদ ভারতের স্পোর্টস সিটি হিসেবে পরিচিতি পাবে বলেও জানান অমিত শাহ।

উল্লেখ্য, ভারত সফররত ইংল্যান্ডের সঙ্গে তৃতীয় টেস্ট ম্যাচ আয়োজনের পর এই স্টেডিয়ামেই অনুষ্ঠিত হবে দুই দলের পাঁচ ম্যাচের টি-২০ সিরিজের পুরোটাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *