স্টয়নিস-স্যামস জুটির বিশ্বরেকর্ড

অসম্ভব এক জায়গা থেকে দলকে লড়াইয়ে ফিরিয়েছিলেন। এমনকি জয়ের সম্ভাবনাও তৈরি হয়েছিল। ডানেডিনে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে মার্কাস স্টয়নিস আর ড্যানিয়েল স্যামসের জুটিতে ২২০ রানের পাহাড়সম লক্ষ্য প্রায় তাড়াই করে ফেলেছিল অস্ট্রেলিয়া।

তবে শেষ রক্ষা হয়নি। বিফলেই গেছে স্টয়নিস আর স্যামসের সপ্তম উইকেটে টি-টোয়েন্টির বিশ্বরেকর্ডগড়া জুটিটি। শ্বাসরুদ্ধকর এক লড়াইয়ে নিউজিল্যান্ডের কাছে ৪ রানে হেরে গেছে অস্ট্রেলিয়া।

বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১২ ওভার শেষে ৩ উইকেটে ১০৭ রান ছিল অস্ট্রেলিয়ার। এক ওভার পেরুতেই সেটি হয়ে গেল ৬ উইকেটে ১১৩, ম্যাচে তখন বলতে গেলে হার নিশ্চিত সফরকারিদের।

কিন্তু হাল ছাড়েননি মার্কাস স্টয়নিস আর ড্যানিয়েল স্যামস। সপ্তম উইকেটে চার-ছক্কার ফুলঝুরিতে ৩৭ বলে ৯২ রানের জুটি গড়েন তারা। শেষ ওভারে অসিদের দরকার ছিল মাত্র ১৫ রান।

যেভাবে ব্যাট চালাচ্ছিলেন স্টয়নিস আর স্যামস, অসম্ভব মনে হচ্ছিল না জয়টা। কিন্তু জিমি নিশাম ওই ওভারে দুই ব্যাটসম্যানকেই তুলে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার স্বপ্ন ভেঙেছেন। তীরে এসে তরী ডুবেছে অতিথিদের।

তবে দল হারলেও স্টয়নিস আর স্যামসের জুটিটা গড়ে ফেলেছে বিশ্বরেকর্ড। সপ্তম উইকেটে তাদের ৯২ রানের জুটিটিই টি-টোয়েন্টির ইতিহাসসেরা। এর আগে ২০০৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওভালে ইংল্যান্ডের পল কলিংউড আর মাইকেল ইয়ার্ডি ৯১ রানের জুুটি গড়েছিলেন।

কাকতালীয় ব্যাপার হলো, কলিংউড-ইয়ার্ডির সপ্তম উইকেটে বিশ্বরেকর্ড গড়া জুটির ওই ম্যাচে হেরেছিল ইংল্যান্ডও। সেই রেকর্ড ভেঙে আজ হার দেখতে হলো অস্ট্রেলিয়াকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *