নানার সঙ্গে পর’কীয়ায় স্বা’মীকে তালাক, এখন বিয়ে করবে না নানা

সম্পর্কে তিনি নানা। তার সঙ্গে গড়ে উঠেছিল প্রেমের সম্পর্ক। তার আশ্বাসেই তালাক দেন স্বামীকে। এখন ওই নানা তাকে বিয়ে করতে টা’লবা’হানা করছেন। এজন্য নানার বাড়িতে অ’নশ’ন চালিয়ে যাচ্ছেন ওই তরুণী।

চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার গোয়ালেরচর ইউনিয়নের সভারচর গ্রামে। এ ব্যাপারে আই’নগত প্র’তিকার চেয়ে মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) ওই তরুণীর বাবা বাদী হয়ে ইসলামপুর থানায় লিখিত অ’ভিযো’গ দায়ের করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, সভারচর পশ্চিমপাড়ার ২২ বছর বয়সী ওই তরুণী পার্শ্ববর্তী মৃ’ত সাহেব আলীর ছেলে সাদ্দাম শেখের সঙ্গে প্রে’মের সম্প’র্কে জড়িয়ে পড়েন। সাদ্দাম সম্পর্কে তার নানার চাচাতো ভাই।

অ’নশন’কা’রী তরুণীর দাবি, বছরখানেক আগে পার্শ্ববর্তী মোহাম্মদপুর গ্রামে তার বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই দুঃস’ম্পর্কের নানা সাদ্দাম তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেন।

একপর্যায়ে তিনি প্রেমের ফাঁ’দে পড়ে পাঁচ মাস আগে সাদ্দামের প্র’রোচ’ণায় স্বামীকে তালাক দেন। স্বামীকে তালাকের পর তিনি প্রেমিক সাদ্দামকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে টা’লবা’হা’না করতে থাকেন।

একপর্যায়ে গত ১৬ ডিসেম্বর রাতে তিনি সাদ্দামের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অ’নশ’ন শুরু করেন। এ ঘটনার দুদিন পর সাদ্দাম আ’ত্মগো’প’ন করেন। ইসলামপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু রায়হান জানান, এ ব্যাপারে অ’ভিযো’গ পেয়েছি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *