বৃদ্ধের সঙ্গে ১৪ বছরের কিশোরীর বিয়ে, রক্ষা পেতে পালিয়ে গেলেন হাসপাতালে

বৃদ্ধের সঙ্গে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেতে গলাচিপা থেকে পালিয়ে দশমিনায় চলে আসা এক কিশোরীকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করেছেন এলাকাবাসী ও পুলিশ। স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা সূত্রে জানা গেছে

গলাচিপা উপজেলার চর বিশ্বাস ইউনিয়নের চর বিশ্বাস গ্রামের মৃত শফিকুল ইসলামের মেয়ে নাজমা বেগম (১৪) বুধবার বিকালে দশমিনা উপজেলার চরহোসনাবাদ এলাকায় সড়কে অজ্ঞান হয়ে পড়েছিল। পরে স্থানীয়রা ও থানা পুলিশ কিশোরীকে উদ্ধার করে দশমিনা হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

হাসপাতালে ভর্তি কিশোরী নাজমা জানায়, তার পিতা শফিকুল ইসলাম মারা যাওয়ার পর মা অন্যত্র বিয়ে করেন। সে তার মামাদের বাড়ি থেকে লেখাপড়া করত। তার মামা দুলাল সিকদার এক বৃদ্ধের সঙ্গে তার বিয়ের পাকা কথা দেন। এর প্রতিবাদ করায় তাকে মারধর করেন মামা।

সে জানায় এ ঘটনায় বাড়ি থেকে পালিয়ে দশমিনা চলে এসে চরহোসনাবাদ সড়কের পাশে অজ্ঞান হয়ে গিয়েছিল। পরে স্থানীয় মানুষ ও পুলিশ তাকে উদ্ধার করে দশমিনা হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ ব্যাপারে গলাচিপার চরবিশ্বাস ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাবুল চৌধুরী জানান দশমিনা থানা পুলিশের ফোন পেয়ে নাজমার মামা দুলাল সিকদারকে দশমিনায় পাঠিয়েছি।

দশমিনা থানার ওসি মো.জসীম জানান মেয়েটিকে উদ্ধার করে দশমিনা হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। মেয়েটির পরিবারকে সংবাদ পাঠানো হয়েছে তারা এলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *