ম্যাক্সওয়েল-তাণ্ডব অ্যাগারের ঘূর্ণিতে সিরিজে ফিরল অস্ট্রেলিয়া

অ্যারন ফিঞ্চের ফর্মে ফেরা হাফসেঞ্চুরি, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের তাণ্ডবের পর অ্যাশটন অ্যাগারের ঘূর্ণিতে দারুণ জয়ে সিরিজে ফিরল অস্ট্রেলিয়া। পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-০তে পিছিয়ে পড়ার পর আজ (বুধবার) ওয়েলিংটনে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে নিউজিল্যান্ডকে ৬৪ রানে হারিয়েছে সফরকারিরা।

রাইলি মেরেডিথ অভিষেকেই গতিতে নজর কাড়লেন (৪ ওভারে ২৪ রানে ২ উইকেট)। অস্ট্রেলিয়ান এই পেসার কিউইদের শুরুর ধাক্কাটা দিয়েছিলেন। তারপরও অনেকটা সময় পর্যন্ত লড়াইয়ে ভালোভাবেই ছিল কিউইরা, যতক্ষণ অ্যাশটন অ্যাগারের ঘূর্ণি জাদু শুরু হয়নি।

অসিদের অব্শ্য জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন ব্যাটসম্যানরাই। দলীয় ৬ রানের মাথায় ম্যাথু ওয়েডকে হারালেও দ্বিতীয় উইকেটে জস ফিলিপ আর অ্যারন ফিঞ্চ ৮৩ রানের জুটিতে শক্তভাবে দাঁড়িয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া।

ফিলিপ ২৭ বলে ৪৩ করে আউট হওয়ার পর তৃতীয় উইকেটে ফিঞ্চ-গ্লেন ম্যাক্সওয়েল মিলে গড়েন ৬৪ রানের আরেকটি জুটি। ৪৪ বলে ৬৯ রান করে ফিঞ্চ সাজঘরের পথ ধরলে ভাঙে এই জুটি।

তবে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল কাজের কাজ করে দিয়েছেন। ৩১ বলে ৮ চার আর ৫ ছক্কায় ৭০ রানের টর্নেডো এক ইনিংস খেলেন অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার, যার মধ্যে তিনি ৬২ রানই নেন বাউন্ডারি থেকে।

১০ থেকে ১৮ ওভারের মধ্যে ১০৫ রান যোগ করে অস্ট্রেলিয়া। ম্যাক্সওয়েল যখন আউট হন, ইনিংসের দুই ওভার বাকি। অসিদের রান তখন ৪ উইকেটে ১৯৪। শেষ দুই ওভারে অবশ্য ১৪ রানের বেশি নিতে পারেনি সফরকারিরা, ৪ উইকেটে তুলেছে ২০৮ রান।

জবাবে ওপেনার মার্টিন গাপটিল (২৮ বলে ৪৩) আর চার নম্বরে নামা ডেভন কনওয়ে (২৭ বলে ৩৮) ছাড়া বলার মতো লড়াই করতে পারেননি নিউজিল্যান্ডের আর কোনো ব্যাটসম্যান। তারপরও ১২ ওভার পর্যন্ত লড়াইয়ে ছিল দলটি, ৩ উইকেটে ছিল ১০৯ রান।

অ্যাশটন অ্যাগারের ভেলকিতে হঠাৎই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে কিউইদের ইনিংস। একের পর এক নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের ফাঁদে ফেলতে থাকেন অস্ট্রেলিয়ার বাঁহাতি এই স্পিনার। ৪ ওভারে ৩০ রান খরচায় তিনি একাই নিয়েছেন ৬ উইকেট। তাতে ১৭ বল বাকি থাকতে নিউজিল্যান্ডের ইনিংস থেমেছে ১৪৪ রানে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *